ঢাকারবিবার, ১৯শে মে ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
ঢাকারবিবার, ১৯শে মে ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইসিটি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আফ্রিকা
  6. ইসলাম
  7. এশিয়া
  8. কলাম
  9. ক্রিকেট
  10. খেলা
  11. চাকরী
  12. জাতীয়
  13. জেলা
  14. জেলা সংবাদ
  15. নিয়োগ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ভেকু মেশিন পোড়ানোর ঘটনায় ১২ জনের নামে এজাহার

Link Copied!

নাটোরের লালপুর উপজেলার নবীনগর এলাকায় পুকুর খনন কাজ চলাকালীন সময়ে ভেকু মেশিন পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় লালপুর থানায় ১২ জনের নাম উল্লেখ সহ আরো ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে এজাহার দায়ের করেছেন উপজেলার তিলকপুর গ্রামের জিন্নাত আলীর ছেলে উজ্জ্বল আহমেদ।
অভিযুক্তরা হলেন,নবীনগর এলাকার মৃত আতাহার প্রামাণিকের ছেলে আশরাফ আলী টোনা(৪৩),আব্দুস শুকুর প্রামাণিক(৫৩) ও ফুরকান আলী(৪৮),মোজাফফর মন্ডলের ছেলে বুদু মন্ডল(৪৩),আবুল কাশেম কালুর ছেলে রাশেদুল ইসলাম,লুৎফর রহমানের ছেলে রাজিব আলী(২৭),মৃত জোবান মোল্লার ছেলে জাফর আলম(৪৫),জিয়াউর রহমান(৪২),জাহিদুর রহমান(৪৭),মফেজ প্রামাণিকের ছেলে ঝন্টু আলী(৪০),মির্জাপুর গ্রামের মৃত আজিমউদ্দিনের ছেলে আবুল কাশেম(৫২),রাধাকৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত হরগোবিন্দ ডাক্তারের ছেলে শ্রী হিরু প্রফেসর সহ আরো ৪/৫ জন।
স্থানীয় ও এজাহার সূত্রে জানা গেছে,এজাহারকারী উজ্জ্বল হোসেন নবীনগর এলাকার মৃত আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী শিল্পী খাতুনের ০.৪৯ শতাংশ জমি লীজ নিয়ে জলাশয় পুকুরে মাছ চাষ করার জন্য ১৯/০৫/২০২৩ইং তারিখ হইতে উপজেলার মনিহারপুর এলাকার আশারাফ আলী সরকারের ছেলে বাদশার এক্সকেভেটর(ভেকু)মেশিন ভাড়ামূলে নিয়া উক্ত জলাশয় পুকুর শংস্করনের কাজ শুরু করেছিল। এক্সকেভেটর(ভেকু)মেশিন ভাড়া করা কালে এক্সকেভেটর(ভেকু) মালিক বাদশাকে অভিযুক্ত হিরু প্রফেসর ও কাশেম
বলে যে,তোর এক্সকেভেটর (ভেকু)যেখানেই নিয়ে যাস না কেন উক্ত এক্সকেভেটর (ভেকু) আগুন জ্বালাইয়া নষ্ট করিয়া দিব বলিয়া হুমকি দেয়।
এ বিষয়ে এজাহারকারী উজ্জ্বল বলেন,
গত ২০/০৫/২০২৩ তারিখ দুপুর অনুমান ০২.০০ ঘটিকার সময় লালপুর থানাধীন নবীনগর এলাকায় আমার লীজ কৃত জমিতে ভেকু মেশিন নামালে অভিযুক্ত ৪/৫ এসে আমার নিকট হইতে উপরোক্ত পুকুর শংস্করনের জন্য ২,০০,০০০/- (দুই লক্ষ) টাকা চাঁদা হিসেবে দাবী করে। আমি আসামীদের চাঁদা দিতে রাজি না হইলে ২২/০৫/২০২৩ইং তারিখ রাত অনুমান ০৩.৩০ ঘটিকার সময় বেআইনী জনতায় দলবন্ধ হইয়া লোহার রড, শাপল, হাসুয়া, প্রেট্রোল সহ জারকিন নিয়া অনধিকার প্রবেশ পূর্বক অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম টোনার হুকুমে সবাই মিলে শাবল দিয়া এক্সকেভেটর (ভেকু) গাড়ীর তেলের ট্রাংকি ছিদ্র করে এবং তাদের হাতে থাকা জারকিন হইতে প্রেট্রোল ছড়াইয়ে দিয়াশলাই দিয়া এক্সকেভেটর গাড়িতে আগুন জালাইয়া দেয়।
অতঃপর গাড়ির ড্রাইভার সাগর হোসেন কেও
হত্যার চেষ্টা করলে সাগর জলাশয়ে লাফ দিয়া নিরাপদে চলে যায়।
তিনি আরও বলেন,আমি ফায়ার সার্ভিসে ফোন করিলে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আসিয়া আগুন নিয়ন্ত্রন করলেও ভেকু মেশিনটা সম্পূর্ণ অকেজো হয়ে গেছে এতে প্রায় ৩৮-৪০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি।
এ বিষয়ে অভিযুক্তরা সংবাদ কর্মীদের সাথে কোন কথা বলতে চাইনি।
লালপুর থানার ওসি উজ্জ্বল হোসেন বলেন,ঘটনা শোনার পরে ঘটনা স্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল।লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।